ময়মনসিংহে প্রধানমন্ত্রীর জনসভা হবে স্মরণকালের সর্ববৃহৎ: ওবায়দুল কাদের

রাজনীতি, 10 March 2023, 468 Views,

চলারপথে ডেস্ক :
স্মার্ট বাংলাদেশ বিনির্মাণের প্রত্যয়ে ময়মনসিংহের সার্কিট হাউস ময়দানে আগামীকাল শনিবার আওয়ামী লীগের বিভাগীয় জনসভা অনুষ্ঠিত হবে। সভায় প্রধান অতিথির ভাষণ দেবেন প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ সভানেত্রী শেখ হাসিনা। জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এহতেশামুল আলমের সভাপতিত্বে বিভাগীয় জনসভায় ময়মনসিংহ, নেত্রকোনা, শেরপুর ও জামালপুর থেকে অন্তত ১০ লাখ লোকের সমাগম হবে বলে আশা করছেন নেতারা।

আজ ১০ মার্চ শুক্রবার সন্ধ্যা ৭টার দিকে সভাস্থলের প্রস্তুতি ঘুরে দেখেন আওয়ামী লীগের প্রতিনিধি দল। পরিদর্শন শেষে সাংবাদিকদের ব্রিফ করেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের। তিনি বলেন, ‘আমার ধারণা স্মরণকালের সর্ববৃহৎ সমাবেশ আগামীকাল সার্কিট হাউস ময়দানে অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে। সমাবেশে (প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা) সংকটের কথা বলবেন, সমাধানের কথা বলবেন। সমস্যার কথা বলবেন এবং উত্তরণের উপায় সম্পর্কে বলবেন। যেটা আমাদের নেত্রী সব সময় বলে থাকেন। আগামী দিনের জন্য বার্তা দেবেন। কী করণীয় সে সম্পর্কে বলবেন। আগামী নির্বাচনের জন্য বার্তা দেবেন। অবশ্যই তিনি আওয়ামী লীগের দুর্গ এ ময়মনসিংহে নৌকার পক্ষে জনগণের সমর্থনের বিষয়টি জনগণের কাছ থেকে আশ্বস্ত হতে চাইবেন।’

তিনি আরও বলেন, ‘ময়মনসিংহে যা উন্নয়ন হয়েছে তার কোনো তুলনা নেই। এ ময়মনসিংহে যেদিকে যান সেদিকেই উন্নয়ন। এক আলোকিত ময়মনসিংহ। গ্রেটার ময়মনসিংহে এই উন্নয়নটা হয়েছে। মানুষ চোখের সামনেই দেখছে উন্নয়ন। উন্নয়ন তো ঢেকে রাখার বিষয় নয়। আমাদের অর্জন সবকিছুই জনগণের চোখের সামনে।’

ময়মনসিংহবাসীর জন্য নতুন কোনো খবর আছে কিনা, এমন প্রশ্নের জবাবে ওবায়দুল কাদের বলেন, বিভাগ হয়ে গেছে, সিটি করপোরেশন হয়ে গেছে, ময়মনসিংহের যেদিকেই তাকান শুধু রাস্তা-ব্রিজ। এ রকম রোড কানেক্টিভিটি ময়মনসিংহের ইতিহাসে কখনো হয়নি। ময়মনসিংহবাসীর চাওয়ার কিছু নেই। সবকিছুই হয়েছে। আগামী নির্বাচন হলে নতুন করে যদি কোনো দাবি ওঠে সেটা দেখা হবে। এখন আর কোনো উন্নয়ন নয়। এই বৈশ্বিক সংকটে এখন শেখ হাসিনার প্রায়োরিটি হচ্ছে দেশের মানুষকে বাঁচানো।

ময়মনসিংহের জেলা প্রশাসক মোস্তাফিজার রহমান জানান, শনিবার দুপুর ১টায় প্রধানমন্ত্রী হেলিকপ্টারে ময়মনসিংহের রফিক উদ্দিন ভুঁইয়া স্টেডিয়াম মাঠে অবতরণ করবেন। সেখান থেকে সার্কিট হাউসে এসে বিশ্রাম নেওয়ার পর প্রধানমন্ত্রী ৭৩টি উন্নয়ন প্রকল্পের উদ্বোধন এবং ৩০টি প্রকল্পের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করবেন। পরে বিকেল ৩টায় সার্কিট হাউস মাঠে আওয়ামী লীগ আয়োজিত বিভাগীয় জনসভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য দেবেন প্রধানমন্ত্রী।

Leave a Reply

যেকোনো পরিস্থিতি মোকাবিলায় সশস্ত্র বাহিনীকে সক্ষম…

অনলাইন ডেস্ক : প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, ‘সরকার যেকোনো পরিস্থিতি Read more

বঙ্গবন্ধু ব্যাডমিন্টন টুর্ণামেন্টের ফাইনাল খেলা ও…

চলারপথে রিপোর্ট : অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মোঃ সাইফুল ইসলাম Read more

এনআইডি জালিয়াতির বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স নীতি…

অনলাইন ডেস্ক : জাতীয় পরিচয়পত্র (এনআইডি) সংক্রান্ত দুর্নীতি দমনে নির্বাচন Read more

আজ জাতীয় ভোটার দিবস

অনলাইন ডেস্ক : জাতীয় ভোটার দিবস আজ ২ মার্চ শনিবার Read more

ডিপ্লোমা প্রকৌশলীদের মাধ্যমিকে শিক্ষক হিসেবে নিয়োগ…

অনলাইন ডেস্ক : শিক্ষামন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী বলেছেন, সরকার দেশের Read more

দ. কোরিয়ায় বাঞ্জি জাম্পের সময় নারীর…

অনলাইন ডেস্ক : দক্ষিণ কোরিয়ায় বাঞ্জি জাম্পিং প্ল্যাটফরম থেকে পড়ে Read more

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় গুজবরোধে ফেসবুক ব্যবহারে সচেতন হওয়ার…

চলারপথে রিপোর্ট : ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়া গুজব Read more

গাছের ডালে ঝুলিয়ে কিশোরকে নির্যাতন, মূল…

চলারপথে রিপোর্ট : ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার আশুগঞ্জ উপজেলায় দিদার হোসেন (১৪) Read more

সুহিলপুরে ট্রাকের ধাক্কায় প্রাণ গেল অটোরিকশার…

চলারপথে রিপোর্ট : সড়কের পাশে দাঁড়িয়ে থাকা সিএনজি চালিত অটোরিকশাকে Read more

নাসিরনগরে “মিট দ্যা চিলড্রেন” শীর্ষক কর্মশালা

চলারপথে রিপোর্ট : ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার নাসিরনগরে প্রান্তিক শিশুদের অধিকার, উন্নয়ন Read more

ভারত থেকে দেশে ফিরলেন নারী শিশুসহ…

চলারপথে রিপোর্ট : বিভিন্ন সময় ভারতে গিয়ে আটকে পড়া ১০ Read more

কেন্দ্রীয় ব্যাংকের ডেপুটি গভর্ণর হলেন ব্রাহ্মণবাড়িয়ার…

চলারপথে রিপোর্ট : সম্প্রতি দুজন ডেপুটি গভর্ণর নিয়োগ দিয়েছে বাংলাদেশ Read more

আমেরিকার সঙ্গে আওয়ামী লীগের আপস হয়ে গেছে: সেতুমন্ত্রী

জাতীয়, রাজনীতি, 3 October 2023, 336 Views,
ফাইল ছবি

অনলাইন ডেস্ক :
আমেরিকার সঙ্গে আওয়ামী লীগের আপস হয়ে গেছে বলে মন্তব্য করেছেন দলটির সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহণ ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

আজ ৩ অক্টোবর মঙ্গলবার বিকালে আমিনবাজারে ঢাকা জেলা আওয়ামী লীগ আয়োজিত শান্তি ও উন্নয়ন সমাবেশে তিনি এ মন্তব্য করেন।

ওবায়দুল কাদের বলেন, দুই সেলফিতে বাজিমাত হয়ে গেছে। আমেরিকার সঙ্গে আওয়ামী লীগের আপস হয়ে গেছে। দিল্লি কিংবা আমেরিকারসহ সবার সঙ্গে আওয়ামী লীগের বন্ধুত্ব রয়েছে, কারো সঙ্গে শত্রুতা নেই।

তিনি আরো বলেন, আওয়ামী লীগ নিষেধাজ্ঞা কিংবা ভিসানীতির পরোয়া করে না। বিএনপি যতই ষড়যন্ত্র করুক বাংলাদেশে সুষ্ঠু নির্বাচন হবেই হবে। নির্বাচন নিয়ে কোনো চিন্তা নেই, এটা সঠিক সময়েই হবে। বিএনপি কোনো কারণে ফাউল করলে লাল কার্ড পাবে। তারা আন্দোলনের হেরে গেছে, নির্বাচনেও হেরে যাবে।

বিএনপির কারণেই খালেদা জিয়ার মামলার নিষ্পত্তি হয়নি বলেও মন্তব্য করেন ওবায়দুল কাদের।

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, খালেদা জিয়া ছাড়া ইলেকশনে না যাওয়ার হুমকি বিএনপি আর কত দেবে? বিএনপি খালেদা জিয়া ছাড়া নির্বাচন করবে না, এ কথা একেবারেই মিথ্যা। তাদের নেতাকর্মীরা খালেদা জিয়ার জন্য একটি আন্দোলনও করতে পারলেন না।

সেতুমন্ত্রী বলেন, বিএনপি আবারও ক্ষমতায় গেলে দেশের সম্পদ চুরি, লুটপাট, ষড়যন্ত্র সন্ত্রাস করবে। গণতন্ত্রকেও গিলে খাবে। আবারও এই দেশকে দুর্নীতিতে চ্যাম্পিয়ন বানাবে। তাদের নেতা কাপুরুষের মতো লন্ডনে পালিয়ে বেড়াচ্ছে কেন, সাহস থাকলে ঢাকায় আসুক।

ওবায়দুল কাদের দেশের জনগণকে শেখ হাসিনার ওপর আস্থা রাখার আহ্বান জানান। তিনি বলেন, শেখ হাসিনা ছাড়া জনপ্রিয়, বিশ্বস্ত এবং সাহসী নেতা আর নেই।

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ৩টি আসনে তরিকতের একজন প্রার্থী

ব্রাহ্মণবাড়িয়া, রাজনীতি, 17 December 2023, 180 Views,

চলারপথে রিপোর্ট :
আসন্ন দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বাংলাদেশ তরিকত ফেডারেশন (বিটিএফ) ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার ছয়টি নির্বাচনী আসনের মধ্যে তিনটিতে একজনকেই প্রার্থী করেছে। সৈয়দ জাফরুল কুদ্দুছ নামের ওই প্রার্থী ব্রাহ্মণবাড়িয়া-২ (সরাইল-আশুগঞ্জ), ব্রাহ্মণবাড়িয়া-৪ (কসবা-আখাউড়া) ও ব্রাহ্মণবাড়িয়া-৫ (নবীনগর) আসনের প্রার্থী।

সৈয়দ জাফরুল ব্রাহ্মণবাড়িয়া-৩ (সদর-বিজয়নগর) আসনের মাছিহাতা এলাকার বাসিন্দা হলেও তিনি এ আসনে মনোনয়ন জমা দেননি। গত ৩ ডিসেম্বর যাচাই-বাছাইয়ে রিটার্নিং কর্মকর্তা সৈয়দ জাফরুলের মনোনয়ন বৈধ ঘোষণা করেন।

সৈয়দ জাফরুল ব্রাহ্মণবাড়িয়া মাছিহাতা দরবার শরিফের পির হিসেবে পরিচিত। নির্বাচন কমিশনে জমা দেওয়া হলফনামা অনুযায়ী, তার ব্যাংকে অ্যাকাউন্টে ছয় হাজার টাকা জমা রয়েছে। কাছে নগদ আছে ১০ লাখ ৬৩ হাজার ১৪৭ টাকা। এছাড়া তার ঘরে এক লাখ ২০ হাজার টাকার আসবাবপত্র ও ৯০ হাজার টাকার ইলেকট্রনিক সামগ্রী রয়েছে। অন্যান্য খাতে আছে দুই লাখ টাকা। তবে তার স্ত্রীর নামে কোনো টাকা বা আয় নেই।

তরিকত ফেডারেশনের এ প্রার্থীর বছরে আয় পাঁচ লাখ ১৭ হাজার ৩০ টাকা। এরমধ্যে কৃষি থেকে আট হাজার, বাড়ি ভাড়া থেকে ৫০ হাজার ও পেশা থেকে চার লাখ ৫৯ হাজার ৩০ টাকা।

স্থাবর সম্পদের মধ্যে রয়েছে চার বিঘা কৃষিজমি, ছয় শতক অকৃষি জমি এবং পাঁচ লাখ টাকা মূল্যের টিনশেড ঘর। তার স্ত্রীর নামে সাত শতক অকৃষি জমি ও চার শতক জায়গায় বাড়ি রয়েছে।

শিক্ষাগত যোগ্যতা হিসেবে আরবিতে ট্রিপল টাইটেল হাদিস, ফিকাহ, তাফসির এবং বাংলায় এমএ, এলএলবি উল্লেখ করেছেন সৈয়দ জাফরুল কুদ্দুছ।

বিএনপির শুভবুদ্ধির উদয় হোক: মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক

আখাউড়া, রাজনীতি, 24 November 2023, 251 Views,

চলারপথে রিপোর্ট :

মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক বলেছেন, বিএনপির শুভবুদ্ধির উদয় হোক। তারা ধ্বংসাত্মক কর্মকাণ্ড ছেড়ে নির্বাচনে অংশগ্রহণ করলে সরকারের কোনো আপত্তি থাকবে না।

আজ ২৪ নভেম্বর শুক্রবার দুপুরে ব্রাক্ষণবাড়িয়া জেলার আখাউড়া খরমপুর কেল্লা শহীদের মাজার জিয়ারতকালে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এ মন্তব্য করেন।

আ ক ম মোজাম্মেল হক বলেন, নির্বাচন নিয়ে বিএনপির কিছু বলার থাকলে তারা ইলেকশন কমিশনকে বলুক। কমিশন সেটি বিবেচনা করবে।

মন্ত্রী বলেন, যদি বিএনপি নির্বাচনে আসতে চায় আমরা তাদের সব সময় অভিনন্দন জানাই। ধ্বংসাত্মক কাজ ছেড়ে সাংবিধানিক পথে নির্বাচনে অংশগ্রহণ করলে সরকারের পক্ষ থেকে তাদের প্রতি আন্তরিক শুভেচ্ছা থাকবে।

এসময় উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) অংগ্যজাই মারমা, কসবা-আখাউড়া সার্কেল সহকারী পুলিশ সুপার মো. দেলোয়ার হোসেন, আখাউড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আসাদুল ইসলাম, আখাউড়া উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সাবেক কমান্ডার বাহার মালদার প্রমুখ।

আওয়ামী লীগকে আন্দোলনের ভয় দেখিয়ে লাভ নেই : অ্যাড. কামরুল ইসলাম

রাজনীতি, 11 April 2023, 436 Views,

চলারপথে ডেস্ক :
তত্ত্বাবধায়ক সরকার নিয়ে কোন আলোচনা নয়, সংবিধান অনুযায়ী যথা সময়ে নির্বাচন হবে বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য অ্যাডভোকেট কামরুল ইসলাম এমপি। আজ ১১ এপ্রিল মঙ্গলবার বিকেলে রাজধানীর কামরাঙ্গীরচরে পবিত্র মাহে রমজান উপলক্ষে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার পক্ষ থেকে ইফতার সামগ্রী বিতরণ অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা বলেন।

তিনি বলেন, আওয়ামী লীগকে আন্দোলনের ভয় দেখিয়ে লাভ নেই, আওয়ামী লীগ জানে কিভাবে আন্দোলন করতে হয় বা প্রতিহত করতে হয়।

তিনি আরো বলেন, বিএনপি জনগণ থেকে বিচ্ছিন্ন, তাদের দেশের মানুষের প্রতি আস্থা নেই, তাদের আস্থা বিদেশীর উপর। উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে জনগণ আবারও শেখ হাসিনাকে ভোট দিয়ে জয়যুক্ত করবে।

পরে ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশন ৫৫, ৫৬ ও ৫৭ নং ওয়ার্ডের তিন হাজার দুস্ত অসহায় পরিবারের মাঝে ইদ উপহার বিতরণ করা হয়।

এসময় উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক এস এম কামাল হোসেন,ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি নুরুল আমিন রুহুল এমপি, ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্ব হুমায়ুন কবির, সাংগঠনিক সম্পাদক আক্তার হোসেন ৫৫ নং ওয়ার্ড কাউন্সিল নুরে আলম, ৫৬ নং ওয়ার্ড কাউন্সিল মোহাম্মদ হোসেন, ৫৭ নং ওয়ার্ড কাউন্সিল সাইদুল মাদবর প্রমুখ।

যাদের এতটুকু ভদ্রতা নেই তাদের সঙ্গে কিসের সংলাপ: প্রধানমন্ত্রী

রাজনীতি, 13 March 2023, 491 Views,
ফাইল ছবি

চলারপথে ডেস্ক :
দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন সামনে রেখে বিরোধী রাজনৈতিক দলগুলো সঙ্গে সংলাপের সম্ভাবনা উড়িয়ে দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি উল্টো প্রশ্ন করে বলেছেন, কার সঙ্গে সংলাপ? যাদের এতটুকু ভদ্রতা নেই, তাদের সঙ্গে কিসের সংলাপ?

আজ ১৩ মার্চ সোমবার গণভবনে এক সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা বলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। কাতারে পাঁচ দিনের রাষ্ট্রীয় সফর নিয়ে গণভবনে এই সংবাদ সম্মেলন হয়। কাতারের আমির শেখ তামিম বিন হামাদ বিন খলিফা আল থানি এবং জাতিসংঘের মহাসচিব আন্তোনিও গুতেরেসের আমন্ত্রণে গত ৪ থেকে ৮ মার্চ এই সফর করেন তিনি।

গতবারের মতো এবারও কোনো সংলাপ হবে কিনা এমন প্রশ্নে প্রধানমন্ত্রী বলেন, গত নির্বাচনে সংলাপ হয়েছে। ২০ জন, ৩০ জন নিয়ে এসে সংলাপে বসেছে। চা-বার্গার খেয়ে গেছে। এতে কী লাভ হয়েছে। আগেই ভোট থেকে নিজেরা সরে গেছে তারা।

শেখ হাসিনা বলেন, আল্লাহ ধৈর্য্য দিয়েছেন। ১৫ আগস্ট জাতির জনককে স্বপরিবারে হত্যা করা হয়েছে। একুশে আগস্ট গ্রেনেড হামলা করে আমাকে মেরে ফেলার চেষ্টা করেছে তারা। এরপরও সেই খুনিদের সঙ্গে বসেছি দেশের স্বার্থে, গণতন্ত্রের স্বার্থে।

তিনি বলেন, আপনারা দেখেছেন, আমাকে সবাই না করেছে ফোন করতে। তবুও আমি তখন তাকে (খালেদা জিয়া) ফোন করি। আমার সঙ্গে কী ব্যবহারটাই না করল? উনি অবরোধ তুললেন না। কী অপমানিত হতে হলো?

খালেদা জিয়ার বাসায় যাওয়ার প্রসঙ্গ তুলে প্রধানমন্ত্রী বলেন, তার ছোট ছেলে মারা গেল। আমি তার বাসায় গেলাম। দরজা বন্ধ করে দেওয়া হলো। আপনারা দেখেছেন, আমাকে বাসায় ঢুকতে দেওয়া হয় নাই।

শেখ হাসিনা বলেন, যারা এতটুকু ভদ্রতা জানে না তাদের সঙ্গে কিসের সংলাপ। প্রধানমন্ত্রী প্রশ্ন রেখে বলেন, কেউ কি পারবে বাবার খুনিদের সঙ্গে বসতে?